বৃহস্পতিবার, ২২-আগস্ট ২০১৯, ০৯:৪০ অপরাহ্ন
  • রাজনীতি
  • »
  • ‘জামিন পাওয়ার পর খালেদা জিয়াই সিদ্ধান্ত নেবেন চিকিৎসা কোথায় করাবেন’

‘জামিন পাওয়ার পর খালেদা জিয়াই সিদ্ধান্ত নেবেন চিকিৎসা কোথায় করাবেন’

shershanews24.com

প্রকাশ : ২০ এপ্রিল, ২০১৯ ০৫:০০ অপরাহ্ন

শীর্ষকাগজ, ঢাকা: জনগণের অধিকার ফিরিয়ে দেওয়া ছাড়া আওয়ামী লীগের কোনও উপায় নেই বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘আমাদের ঘুরে দাঁড়ানোর কোনও বিষয় নেই। আওয়ামী লীগ কীভাবে ঘুরে দাঁড়াবে সেটাই হলো বিষয়। তারা জনগণের অধিকার হরণ করেছে। কীভাবে তা ফিরিয়ে দেবে তাদের সেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে। জনগণের অধিকার ফিরিয়ে দেওয়া ছাড়া তাদের ঘুরে দাঁড়ানোর কোনও উপায় নেই।’

শনিবার (২০ এপ্রিল) জাতীয় প্রেসক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী হলে নাগরিক অধিকার আন্দোলন ফোরাম আয়োজিত এক প্রতিবাদ সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘খালেদা জিয়ার কারাবরণের বিষয়টি রাজনীতিক। এখানে আইনি কোনও বিষয় নেই। দেশ ও দেশের বাইরে এটি এখন পরিষ্কার। আমি খালেদা জিয়ার কথা বলছি না, কোনও জনপ্রিয় দলের চেয়ারপারসনের কথা বলছি না। বলছি একজন নাগরিকের সাংবিধানিক অধিকার, মানবিক অধিকারের কথা। অধিকারের বিবেচনায় উনার জামিন হওয়ার কথা। তিনি যেখানে সাধারণভাবে জামিন পাওয়ার যোগ্য, সেখানে প্যারোলের প্রশ্ন কেন আসছে, সেটা আমার বোধগম্য নয়।’

বিএনপির এই নেতা আরও বলেন, বিএনপি'র পক্ষ থেকে খালেদা জিয়াকে প্যারোলে পাঠানোর জন্য কোনও দাবি জানানো হয়েছে? তাহলে কেন সরকারের মন্ত্রীরা বলছেন, উনাকে প্যারোলে পাঠালে বিবেচনা করা যেতে পারে। যেটা জামিনযোগ্য বিষয় হয়ে গেছে এবং যে জামিন পাওয়ার কথা আরও অনেক আগেই। উনি জামিন পাওয়ার পরে উনার চিকিৎসা উনি কোথায় করাবেন সেটা তার সিদ্ধান্ত। চিকিৎসা দেশে হবে, না বিদেশে হবে সেটা উনারই বিবেচনা।’

নির্বাচন নিয়ে তিনি বলেন, ‘যে নির্বাচনটি বাংলাদেশের মানুষ প্রত্যাখ্যান করেছে, যে নির্বাচন বিশ্বের সব গণতান্ত্রিক দল থেকে প্রত্যাক্ষিত হয়েছে, যেখানে নির্বাচন হয়নি, সেখানে বিএনপি'র নির্বাচিত ছয় জন কীভাবে সংসদে যাবে?’

প্রতিবাদ সভায় আয়োজক সংগঠনের উপদেষ্টা সাঈদ আহমেদ আসলাম, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, বগুড়া থেকে বিএনপির নির্বাচিত সংসদ সদস্য মোশাররফ হোসেন ও কেন্দ্রীয় মহিলা দলের নেত্রী সৈয়দ রুমি প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
শীর্ষকাগজ/এসএসআই