মঙ্গলবার, ২০-নভেম্বর ২০১৮, ০৬:৫৭ পূর্বাহ্ন
  • রাজনীতি
  • »
  • পথে পথে ব্যারিকেড উপেক্ষা করে ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশে নেতাকর্মীদের ঢল

পথে পথে ব্যারিকেড উপেক্ষা করে ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশে নেতাকর্মীদের ঢল

Shershanews24.com

প্রকাশ : ০৯ নভেম্বর, ২০১৮ ০২:৪৬ অপরাহ্ন

শীর্ষনিউজ, ঢাকা: বিএনপি চেয়ারপারসনের মুক্তি ও নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনসহ ৭ দফা দাবিতে রাজশাহীতে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের জনসভা চলছে। জনসভায় সকল বাধা উপেক্ষা করে বিএনপিসহ জোটের নেতাকর্মীদের ঢল নেমেছে। 
শুক্রবার (৯ নভেম্বর) দুপুর ২টায় রাজশাহী মহানগরীর ঐতিহাসিক মাদ্রাসা ময়দানে এই সমাবেশ শুরু হয়। 
কিছুক্ষণের মধ্যে মঞ্চে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, জেএসডির সভাপতি আ স ম আবদুর রব, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্নাসহ ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতারা উপস্থিত হবেন।


বিভিন্ন জেলা থেকে রাজশাহী অভিমুখে বাস-ট্রাক চলাচল বন্ধ করে দেয়া হলেও সকাল থেকেই বিকল্প পথ হিসেবে নৌকা, ট্রেন বা ছোট ছোট যানবাহন ব্যবহার শহরের বিভিন্ন পয়েন্ট জড়ো হোন বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্ট নেতারা। সমাবেশস্থল রাজশাহী মহানগরীর ঐতিহাসিক মাদ্রাসায় জেডিসি পরীক্ষা চলায় দুপুর ১টার পর মাদ্রাসা ময়দানে যোগ দেন নেতাকর্মীরা।
তবে নেতাকর্মীরা অভিযোগ- জনসভায় আসতে তাদের বাধা দেয়া হয়েছে। ধর্মঘটের নামে বাস-ট্রাক বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। রাজশাহীর আশপাশের জেলাগুলো থেকে আসা নেতাকর্মীদের প্রবেশ পথে তল্লাশি করা হয়েছে। অনেক মিছিলে বাধা দেয়া হয়েছে। তাদের ফিরিয়ে দেয়া হয়েছে।


পাবনা থেকে আসা বিএনপির এক নেতা জানান, ‘জেলা থেকে রাজশাহীমুখী বাস বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। আমরা নিজেদের ৩টা গাড়ি করে রওনা হই। আসার পথে পুলিশ ব্যারিকেড দেয়। প্রায় দুই জায়গায় পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙেই আমরা এসেছি। তবে আমাদের আরও কয়েকটি গাড়ি আটকে দিয়েছে বলে আমার কর্মীরা জানিয়েছেন।’
নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক বাগমারার এক বিএনপির নেতা জানান, অনেক কষ্ট করে সমাবেশে এসেছিন তিনি। রাজশাহী জেলায় মুলত এই সমাবেশে বিএনপির নেতা-র্মী ও সমর্থকেরাই আসবে।
বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য সাবেক এমপি সিরাজুল ইসলাম সরদার বলেন, ‘গাড়ি না পেয়ে পাবনা থেকে মাইক্রোতে এসেছি। পথে পথে বিভিন্ন জায়গায় ঠেকানো হয়েছে। বিভিন্ন রাস্তা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।’ 
শীর্ষনিউজ/এনএস