বৃহস্পতিবার, ২২-আগস্ট ২০১৯, ০২:৫৫ অপরাহ্ন
  • জাতীয়
  • »
  • দুধ নিয়ে গবেষণা করায় হুমকি: সেই অতিরিক্ত সচিবের বহিষ্কার দাবি

দুধ নিয়ে গবেষণা করায় হুমকি: সেই অতিরিক্ত সচিবের বহিষ্কার দাবি

shershanews24.com

প্রকাশ : ১৫ জুলাই, ২০১৯ ০৫:০৬ অপরাহ্ন

শীর্ষনিউজ, ঢাকা : দুধ নিয়ে গবেষণা করার কারণে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) অধ্যাপক ড. আ ব ম ফারুককে হুমকি দেয়ায় অতিরিক্ত সচিব কাজী ওয়াছি উদ্দিনের বহিষ্কার দাবি করেছেন মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন গৌরব’৭১। 

সোমবার বেলা ১১টায় রাজধানীর শাহবাগ চত্বরে আয়োজিত এক মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে এ দাবি জানায় সংগঠনটি। এ সময় অধ্যাপক ফারুকের পাশে থাকারও ঘোষণা দেন।
মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ঢাবির পুষ্টি ও খাদ্য বিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক ডা. আব্দুজ জাহের, ঢাবি শিক্ষক ড. রায়হান, ঢাবি ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ সাকিব বাদশা, ঢাবির রোকেয়া হল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শ্রাবণী ইসলামসহ প্রমুখ। 
মানববন্ধনে ডা. আব্দুজ জাহের বলেন, আমি স্যারকে ব্যক্তিগতভাবে চিনি। স্যারের সততা নিয়ে কখনো কেউ আঙ্গুল তুলতে পারেনি। বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজ গবেষণা করা। স্যারও জনস্বার্থে গবেষেণা করেছেন। এবং গবেষণায় তিনি দুধে ক্ষতিকর অ্যান্টিবায়োটিক পেয়ে জনগণকে জানিয়েছেন। এ গবেষণা ভুল প্রমাণ করতে হলে আরেকটা গবেষণা দিয়ে ভুল প্রমাণ করতে হবে। অথচ মৎস্য সম্পদ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব কোনো রকম প্রমাণ ছাড়াই তার বিরুদ্ধে মামলার হুমকি দিচ্ছেন।

তিনি বলেন, আমরা ফারুক স্যারের পাশে নয় বরং একজন গবেষক, একজন দেশপ্রেমিক স্যারের পাশে আছি। আমরা ভেজালমুক্ত বাংলাদেশ চাই। একই স্যারকে হুমকি দেয়া সেই অতিরিক্ত সচিবের অপসারণসহ তার শাস্তি দাবি করছি। 

ঢাবি শিক্ষক ড. রায়হান বলেন, শেখ হাসিনা যখন উন্নত-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার কাজে নিয়োজিত আছেন। তিনি যখন খাদ্যে ভেজালে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করলেন, ফারক স্যারও ভেজাল দুধ নিয়ে গবেষণা করলেন। অথচ তাকে হুমকি দেয়া হচ্ছে। এটা জাতির জন্য লজ্জার।

দুঃখ প্রকাশ করে তিনি বলেন, আমরা দেখেছি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়েছে। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকবৃন্দের এখনো কোনো প্রতিবাদ লক্ষ করিনি। বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতিও কোন প্রতিবাদ বা প্রেস রিলিজ প্রকাশ করেনি। এ ব্যাপারে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি।

সাবেক ছাত্রনেতা সাজ্জাদ সাকিব বাদশা বলেন, সারা বিশ্বে যখন অ্যান্টিবায়োটিকের ব্যবহার কমছে, সেখানে আমাদের দেশে এটার ব্যবহার বাড়ছে। ফারুক স্যার গবেষণা করে দুধে অ্যান্টিবায়োটিক পেয়েছেন। তাই তিনি জনস্বাস্থ্যের কথা চিন্তা করে এটি দ্রুত প্রকাশ করেছেন। কিন্তু স্যারকে নিয়ে চক্রান্ত করা হচ্ছে। এসব আমরা মেনে নেবো না।

তিনি বলেন, তার  মতো দৃঢ় চেতা স্যার খুব কম আছে। স্যারকে আমরা হারতে দেবো না। সবাইকে এ আন্দোলনে পাশে থাকার আহ্বান জানান তিনি।

ছাত্রলীগ নেত্রী শ্রাবণী ইসলাম বলেন, আমি স্যারকে বলতে চাই, স্যার আপনি একা নন। আমরা আপনার পাশে আছি। স্যার দুধ নিয়ে গবেষণা করে অ্যান্টিবায়োটিক পেয়েছেন। স্যারের গবেষণায় পৃষ্ঠপোষকতা করা উচিত। অথচ স্যারকে হুমকি দেয়া হচ্ছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় একটি স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান, এখানে গবেষণা করার অধিকার সবার আছে।

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশে তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনাকে তো সব কিছু করতে হয়। আপনি এই বিষয়টায় একটু নজর দিন।

অনুষ্ঠানের সঞ্চালক ও গৌরব ৭১ সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক এফ এম শাহিন বলেন, ফারুক স্যার দুধ নিয়ে গবেষণা করায় তাকে হুমকি দেয়া হচ্ছে। এই হুমকি শুধু শিক্ষকদের বিরুদ্ধে নয়। এই হুমকি সত্যের বিরুদ্ধে। তিনি বলেন, অতিরিক্ত সচিব ওয়াছিকে বলতে চাই, আপনি বিভিন্ন কোম্পানির কাছ থেকে টাকা খেয়ে হুমকি দিচ্ছেন। এই হুমকি মেনে নেয়া হবে না। আপনিও পার পাবেন না।

প্রশাসনের উদ্দেশে তিনি বলেন, আগামী ১০ দিনের মধ্যে তদন্ত কমিটি করে অতিরিক্ত এ সচিবের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। তাকে বহিষ্কার করতে হবে। অন্যথায়, গৌরব ৭১ অতিরিক্ত সচিবের বিরুদ্ধে মাঠে নামবে।

মানববন্ধনের আরো উপস্থিত ছিলেন বিবার্তা সম্পাদক বাণী ইয়াসমিন হাসিসহ বিশিষ্ট রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তি।

উল্লেখ্য, ২৫ জুন এক সংবাদ সম্মেলনে ঢাবি বায়োমেডিকেল রিসার্স সেন্টারের পরিচালক আ ব ম ফারুকসহ ফার্মেসি অনুষদের কয়েকজন শিক্ষক দুধে অ্যান্টিবায়োটিক পাওয়ার গবেষণার ফলাফল প্রকাশ করেন। এর পরের দিন পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য এ গবেষণাকে মিথ্যা বলে দাবি করেন। পরে ৯ জুলাই গবেষকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার হুমকি দিয়েছেন অতিরিক্ত সচিব কাজী ওয়াছি উদ্দিন।
শীর্ষনিউজ/এস