সোমবার, ১৭-জুন ২০১৯, ০১:২৪ অপরাহ্ন
  • জাতীয়
  • »
  • চাল আমদানি নিরুৎসাহিত করতে ৫৫ শতাংশ শুল্ক আরোপ

চাল আমদানি নিরুৎসাহিত করতে ৫৫ শতাংশ শুল্ক আরোপ

Sheershakagoj24.com

প্রকাশ : ২২ মে, ২০১৯ ০৪:৩৮ অপরাহ্ন

শীর্ষকাগজ, ঢাকা : বিদেশ থেকে চাল আমদানি নিরুৎসাহিত করতে ২৮ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ৫৫ শতাংশ শুল্ক আরোপ করেছে এনবিআর। রাষ্ট্রীয় এই প্রতিষ্ঠানটি আজ এ সংক্রান্ত এক প্রজ্ঞাপন জারি করে। 

এর আগে ধানের মূল্য কম হওয়ার ক্ষোভে ক্ষেতে আগুন দেয়ার ঘটনায় দেশজুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। সমালোচনার ঝড় ওঠে দেশি কৃষকদের কাজ থেকে সরকার সরাসরি ধান না কেনার কারণে। অন্যদিকে দেশে যথেষ্ট উৎপাদন হওয়া সত্ত্বেও বিদেশ থেকে চাল আমদানি করতে সুযোগ করে দেয়ার সরকারের বিরুদ্ধে কৃষক ও রাজনীতিকরাসহ বিভিন্ন মহল থেকে সমালোচনা শুরু হয়। অন্যদিকে প্রতিদিনই রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে কৃষকদের কাজ থেকে সরাসরি ধান কেনার দাবিতে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন অব্যাহত রয়েছে। এরই মধ্যে এনবিআর এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করে।  
প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী জাতীয় রাজস্ব বোর্ড চাল আমদানি নিরূৎসাহিত করতে চালের ওপর বর্তমানে প্রযোজ্য আমদানি শুল্ক ২৫ শতাংশ বহাল রেখে রেগুলেটরি ডিওটি ৩ শতাংশ থেকে বৃদ্ধি করে ২৫ শতাংশ করা হয়েছে। বুধবার বিকেলে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা সৈয়দ এ. মুমেন স্বাক্ষরিত গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এতথ্য জানানো হয়।

একই সঙ্গে এ সকল পণ্যের ওপর ৫ শতাংশ অগ্রিম আয়কর আরোপ করা হয়েছে। ফলে চাল আমদানির ক্ষেত্রে মোট করভার ৫৫ শতাংশে উন্নীত করা হয়েছে বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

এতে বলা হয়, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড বুধবার এ সংক্রান্ত  একটি প্রজ্ঞাপন জারি করেছে, যা আজ থেকেই কার্যকর হবে।

এ বিষয়ে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া বলেন, চলতি ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরে ১০ মাসে প্রায় ৩ লক্ষ ৩ হাজার মেট্রিক টন চাল আমদানি করা হয়েছে।  এতে দেশীয় কৃষকগণ কর্তৃক উৎপাদন খরচের চেয়ে কম মূল্যে চাল বিক্রয় করতে বাধ্য হচ্ছে। যার ফলে প্রান্তিক কৃষকগণ আর্থিকভাবে বিপুল ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন। তিনি বলেন, কৃষকগণকে আর্থিক ক্ষতি থেকে রক্ষাকল্পে প্রধানমন্ত্রীর সদয় অনুশাসন অনুযায়ী আমরা আমদানি পর্যায়ে চালের ওপর আমদানি শুল্ক কর বৃদ্ধি করেছি।
শীর্ষকাগজ/এসএসআই