শুক্রবার, ১৯-জুলাই ২০১৯, ১১:১৩ অপরাহ্ন
  • জাতীয়
  • »
  • ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টিতে স্বস্তি

ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টিতে স্বস্তি

shershanews24.com

প্রকাশ : ১৪ মে, ২০১৯ ১০:২২ অপরাহ্ন

শীর্ষকাগজ, ঢাকা : দেশের বিভিন্ন স্থানে তাপদাহের পর বৈশাখের শেষে দুদিন বৃষ্টিতে স্বস্তি মিলেছে রাজধানীসহ সারা দেশের মানুষের। মঙ্গলবারও (১৪ মে) সন্ধ্যার পরে বৃষ্টি হয়েছে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে। এই বৃষ্টিপাত অন্তত আরো দু’দিন চলবে বলে আভাস দিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

সন্ধ্যা ৬টা থেকে আবহাওয়া অফিসের ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় এবং ঢাকা, খুলনা, রাজশাহী ও চট্টগ্রাম বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং বরিশাল বিভোবের দু’এক জায়গায় অস্থায়ী দমকা/ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে বিক্ষিপ্তভাবে শিলাবৃষ্টিও হতে পারে।

অন্যদিকে, খুলনা ও যশোর অঞ্চলসমূহের উপর দিয়ে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা প্রশমিত হতে পারে। সারা দেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকবে।

আগামী দু’দিনের পূর্বাভাসে বলা হয়, এই সময়ে বৃষ্টি/বজ্রবৃষ্টির কার্যকারিতা অব্যাহত থাকতে পারে। তবে আগামী পাঁচ দিনের আবহাওয়ার অবস্থায় বলা হয়, এই সময়ে তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেতে পারে।

সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত হয়েছে ফরিদপুরে ৪৩ মিলিমিটার। এছাড়া ঢাকায় ২৪, ময়মনসিংহে ৯, সিলেটে ২৫, রাজশাহীতে ১১, রংপুরে ৯, খুলনায় ১ এবং বরিশালে৭ মিলিমিটারসহ দেশের প্রায় সব স্থানেই বৃষ্টিপাত হয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় খুলনায় সর্বোচ্চ ৩৬ দশকি ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসতাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়। এছাড়া বরিশালে ৩৫ দশমিক ১, রাজশাহীতে ৩৫, চট্টগ্রামে ৩৪, সিলেটে ৩৩ দশমিক ৩, রংপুরে ৩৩, ঢাকায় ৩৪ দশমিক ৪ এবং ময়মনসিংহে ৩২ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়।  

বুধবার (১৫ মে) সকাল ৯টা পর্যন্ত নদীবন্দরসমূহের জন্য পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, যশোর, কুষ্টিয়া, বরিশাল, ঢাকা, ফরিদপুর, মাদারিপুর, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কমিল্লা এবং চট্টগ্রাম অঞ্চলের উপর দিয়ে পশ্চিম/উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৬০-৮০ কিলোমিটার বেগে অস্থায়ীভাবে ঝড়ো হাওয়া এবং বজ্রবৃষ্টি হতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরসমূহকে ২ নম্বর নৌ-হুঁশিয়ারি সংকেত দেকাতে বলা হয়েছে।

এছাড়া ঝড়ো হাওয়ার আশঙ্কায় দেশের অন্য নদীবন্দরগুলোকে ১ নম্বর সতর্কতা সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

শীর্ষকাগজ/এসএসআই