শুক্রবার, ১৯-জুলাই ২০১৯, ০৬:৩৯ অপরাহ্ন
  • অপরাধ
  • »
  • রাজধানীতে আরও ৮ কোচিং সেন্টার সিলগালা

রাজধানীতে আরও ৮ কোচিং সেন্টার সিলগালা

shershanews24.com

প্রকাশ : ১১ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯ ১১:০০ অপরাহ্ন

শীর্ষকাগজ, ঢাকা: রাজধানীর যাত্রাবাড়ী এলাকায় সোমবার ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে আটটি কোচিং সেন্টার সিলগালা করে দেয়া হয়েছে। এর আগে রোববার রাজধানীর ধানমণ্ডির জিগাতলা ও ফার্মগেটে ৬টি কোচিং সেন্টার সিলগালা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এছাড়া স্কুলের ক্লাস ফাঁকি দিয়ে কোচিং করানোর দায়ে যাত্রাবাড়ী আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের গণিতের শিক্ষক মোশাররফ এবং পদার্থবিদ্যার গোলাম মাওলার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য ঢাকা জেলা শিক্ষা অফিসারকে সুপারিশ করা হয়েছে।

সিলগালা করা কোচিং সেন্টারগুলো হচ্ছে- প্রিভেইল, সমীকরণ, চ্যালেঞ্জার, জেনুইন , বেস্ট, ফরম্যাট কমার্স, ফরম্যাট একাডেমি ও এম আর কোচিং সেন্টার।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট ও র্যাবের আইন কর্মকর্তা গাউছুল আজম জানান, অভিভাবকদের অভিযোগ যাত্রাবাড়ী আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের গণিতের শিক্ষক মোশাররফ এবং পদার্থবিদ্যার গোলাম মাওলা তাদের বাসায় কোচিং না করলে স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের রীতিমতো ফেল করানোর হুমকি দেন।

তাদের বাসায় ছাত্রছাত্রীদের পড়তে বাধ্য করা হয় এমন অভিযোগের ভিত্তিতে সোমবার দুপুর ১২টার দিকে ওই দুই শিক্ষকের বাসায় অভিযান চালালে তাদেরকে বাসায় বসে কোচিং করানো অবস্থায় পাওয়া যায়। স্কুল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধেও কোচিং বাণিজ্যের গুরুতর অভিযোগ রয়েছে এলাকবাসীর। ওই দু’জনের বাসায় দিনভর ছাত্রছাত্রীদের ভিড় লেগেই থাকে।

বিষয়টি ঢাকা জেলা শিক্ষা অফিসারকে মোবাইল ফোনে অবহিত করে তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ করা হয়।

এছাড়া দনিয়া এ কে হাইস্কুলের অষ্টম শ্রেণির কয়েকজন ছাত্র অভিযোগ করে, স্যার, ম্যাডামরা ভালো করে ক্লাসে পড়ান না, ক্লাসে বসে মোবাইল চালান। এ জন্য তারা কোচিং সেন্টারে যায়। কয়েকটি কোচিং সেন্টারের সঙ্গে পার্শ্ববর্তী স্কুলের শিক্ষকরা জড়িত বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে।

প্রিভেইল নামে এক কোচিং সেন্টারে গিয়ে জানা যায় দ্বিতীয় ও তৃতীয় শ্রেণির এক একজন ছাত্রের কাছ থেকে মাসিক ২ থেকে ৩ হাজার টাকা ফি নেয়া হয়। এসএসসি পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে কোচিং সেন্টার পরিচালনা করায় সোমবার ভ্রাম্যমাণ আদালত মোট ৮টি কোচিং সেন্টার সিলগালা এবং ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এলাকাবাসী মোবাইল কোর্টের অভিযানে সন্তোষ প্রকাশ করেন।
শীর্ষকাগজ/এসএসআই