বুধবার, ১৪-নভেম্বর ২০১৮, ০৪:১২ পূর্বাহ্ন

বিশ্বে কমেছে নারীদের সন্তান জন্মদান হার

Shershanews24.com

প্রকাশ : ০৯ নভেম্বর, ২০১৮ ০৩:৪৯ অপরাহ্ন

শীর্ষনিউজ ডেস্ক : বিশ্বজুড়ে নারীদের সন্তান জন্মদানের হার লক্ষণীয়ভাবে কমেছে। গবেষকরা এমন তথ্য জানিয়েছেন। খবর বিবিসির।

সম্প্রতি মেডিকেল জার্নাল ল্যান্সেটে প্রকাশিত এক গবেষণায় দেখা গেছে, বিশ্বজুড়ে প্রায় অর্ধেক দেশে শিশু জন্মহার হ্রাস পেয়েছে। জনসংখ্যার ভারসাম্যতা বজায় রাখার জন্য পর্যাপ্ত শিশু জন্ম নিচ্ছে না।

গবেষকরা বলেন, এটা একটি অত্যন্ত হতবাক করা বিষয়। এতে করে আগামীতে বিশ্বের সমাজগুলোতে সংখ্যাগরিষ্ঠ থাকবে দাদা-দাদী ও নানা-নানীরা।

গবেষকরা ১৯৫০ সাল থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত প্রত্যেক দেশে জন্মহারের পরিবর্তন বিশ্লেষণ করেছে। ১৯৫০ সালে নারীরা গড়ে তাদের জীবনকালে ৪.৭টি করে সন্তান জন্ম দিতো। গত বছর সে হার ২.৪-এ নেমে এসেছে।

দেশ ভিত্তিতে নারীদের প্রজনন হারে ব্যাপক ব্যবধান লক্ষ্য করা গেছে। যেমন নাইজার, পশ্চিম আফ্রিকায় নারীরা এখনো তাদের জীবনকালে গড়ে ৭.১টি সন্তান জন্ম দেয়। কিন্তু সাইপ্রাসে সে সংখ্যা গড়ে মাত্র ১টি।

গবেষকরা বলছেন, কোন দেশে প্রজনন ক্ষমতা ২.১ এর নিচে কমে আসলে দেশটির জনসংখ্যা ধীরে ধীরে কমা শুরু করে। এই গবেষণার শুরুতে (১৯৫০ সাল) এমন দেশের সংখ্যা ছিল শূন্য।

প্রজনন ক্ষমতা হ্রাস পাওয়ায় সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়েছে উন্নত দেশগুলো-দক্ষিণ কোরিয়া, যুক্তরাষ্ট্র, অস্ট্রেলিয়া ও ইউরোপের অধিকাংশ দেশ। তবে অভিবাসন, মৃত্যুর হার ইত্যাদির কারণে দেশগুলোতে জনসংখ্যা কমছে না।

গবেষকরা প্রজনন হার হ্রাস পাওয়ার জন্য তিনটি প্রধান কারণ চিহ্নিত করেছেন। এর মধ্যে প্রথমত রয়েছে, শিশু মৃত্যুহার কমার জন্য নারীরা সন্তান কম নিচ্ছে। দ্বিতীয়ত, গর্ভনিরোধক ঔষধের বিস্তৃত ব্যবহার। তৃতীয়ত, শিক্ষা ও কর্মক্ষেত্রে অধিক নারীর অংশগ্রহণ।

শীর্ষনিউজ/এমই