শুক্রবার, ২৩-আগস্ট ২০১৯, ০১:৪৩ পূর্বাহ্ন

চমেক হাসপাতালে দৈনিক গড়ে মৃত্যু ৩০

shershanews24.com

প্রকাশ : ২৭ জানুয়ারী, ২০১৯ ০৯:০৩ অপরাহ্ন

শীর্ষকাগজ, চট্টগ্রাম : চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে দৈনিক গড়ে ২ হাজার ৪৮৩ জন রোগী ভর্তি হয়। এদের মধ্যে দৈনিক ৩০ জন মারা যায়। চমেক হাসপাতালের ২০১৮ সালের রোগীর পরিসংখ্যান বিশ্লেষণ করে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।
বার্ষিক এ প্রতিবেদনে দেখা যায়, ২০১৮ সালে চিকিৎসা নিতে আসা ৭ হাজার ১৪৯ রোগী ছাড়পত্র না নিয়ে হাসপাতাল ত্যাগ করেছেন। মারা গেছেন ১০ হাজার ৯০৩ জন রোগী। বছর জুড়ে সেবা নিয়েছেন ৯ লাখ ৬ হাজার ৪৪৭ রোগী।
এর মধ্যে জানুয়ারিতে ভর্তি হয় ৭৯ হাজার ৬৫৩ রোগী, মারা যায় ৯৫৫ জন। ফেব্রুয়ারিতে ভর্তি হওয়া ৭৩ হাজার ৭৫৩ রোগীর মধ্যে মারা যায় ৮৯০ জন। মার্চে রোগী ভর্তি হয় ৮৪ হাজার ৪০৩ জন, মৃত্যুবরণ করেন ৮৪৯ জন। এপ্রিলে ৮০ হাজার ৬৯০ জন ভর্তি হওয়া রোগীর মধ্যে মারা যায় ৮৬৯ জন। মে মাসে ৮০ হাজার ১৩৭ জন রোগী ভর্তি হয়, মারা যায় ৮২৫ রোগী। জুনে ৬৮ হাজার ৮১২ জনের মধ্যে মারা যায় ৭৮৯ জন।
জুলাই মাসে ভর্তি হয় ৯০ হাজার ১৯৩ রোগী, মারা যায় ৮৮৩ জন। আগস্টে ৮৩ হাজার ৪৬১ জনের মধ্যে মারা যায় ৯২৩ জন। সেপ্টেম্বরে রোগী ভর্তি হয় ৯২ হাজার ১৯ জন, মৃত্যুবরণ করেন ৮৫৯ রোগী। অক্টোবরে ৯২ হাজার ৭১৬ রোগীর মধ্যে মারা যায় ৯৯০ জন। নভেম্বরে মারা যায় ৯৫৮ জন, ভর্তি হয় ৮৬ হাজার ৮৫৩ রোগী। ডিসেম্বরে ভর্তি হয় ৮৫ হাজার ৭৭১ রোগী, তারমধ্যে মারা যায় ১ হাজার ১১৩ জন।
তবে প্রতিবেদনে রোগীর মৃত্যুর কারণ, বয়সসহ একাধিক তথ্য উল্লেখ নেই। 
হাসপাতালের সেবা তত্ত্বাবধায়ক শিপ্রা চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, ওয়ার্ড থেকে ডাটা নিয়ে বার্ষিক প্রতিবেদন তৈরি করা হয়। রোগীর মৃত্যুর কারণ বয়স। এসব তথ্য দিয়ে আলাদা প্রতিবেদন তৈরি করা হয়।
হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. আখতারুল ইসলাম বলেন, বার্ষিক প্রতিবেদন তৈরির মাধ্যমে সেবার চিত্র ফুটে উঠে। এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্টদের জবাবদিহিতার আওতায় আনা যায়।
১৯৫৭ সালে ৫০০ শয্যা নিয়ে এ হাসপাতালের যাত্রা শুরু হয়। পরবর্তীতে দুই দফা বাড়িয়ে বর্তমানে শয্যা সংখ্যা ১ হাজার ৩১৩। এখনো বৃহত্তর চট্টগ্রামবাসীর চিকিৎসার শেষ আশ্রয়স্থল এ হাসপাতাল। জটিল ও মুমূর্ষু রোগীরা এ হাসপাতালেই ছুটে আসেন। কিন্তু সুবিধার তুলনায় রোগীর সংখ্যা বেশি হওয়ায় সেবা নিতে আসা রোগীদের একাধিক অভিযোগ পাওয়া যায়।
শীর্ষকাগজ/এনএস