শুক্রবার, ১৯-জুলাই ২০১৯, ১০:৩০ অপরাহ্ন
  • শিক্ষা
  • »
  • ৩ ক্যাটাগরিতে ভাগ কলেজ, একাদশে ভর্তি শুরু ১২ মে

৩ ক্যাটাগরিতে ভাগ কলেজ, একাদশে ভর্তি শুরু ১২ মে

shershanews24.com

প্রকাশ : ০৮ মে, ২০১৯ ০৪:১৮ অপরাহ্ন

শীর্ষকাগজ, ঢাকা : এবছর একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি প্রক্রিয়ায় বেশ কিছু পরিবর্তন আনছে শিক্ষা বোর্ডগুলো। প্রথম বর্ষে ভর্তির ক্ষেত্রে সরকারি-বেসরকারি কলেজগুলোকে এবার তিনটি ক্যাটাগরিতে ভাগ করা হয়েছে। বুধবার (৮ মে) ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান জিয়াউল হক এসব তথ্য জানান।

জিয়াউল হক বলেন, উচ্চ মাধ্যমিকে ভর্তির প্রক্রিয়াটি এ বছর ঢাকা শিক্ষা বোর্ড সম্পন্ন করবে। এজন্য আমরা কলেজগুলোকে এ, বি, সি -এমন তিনটি ক্যাটাগরিতে ভাগ করে দিয়েছি। ভর্তি প্রক্রিয়ায় অভিভাবক এবং শিক্ষার্থীরা যেন ভালো কলেজ ভেবে ভুল কলেজে ভর্তি না হয়ে যায় এজন্যই এই শ্রেণীকরণ।পুরো ভর্তি প্রক্রিয়াটিকে আমরা একটি কাঠামোর ভেতরে আনার চেষ্টা করছি।

গত বছর একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীর সংখ্যা এবং ফল বিবেচনায় দেশের কলেজ গুলোকে তিনটি শ্রেণীতে ভাগ করা হয়েছে বলেও  জানান তিনি।

বলেন, বিগত শিক্ষাবর্ষগুলোতে যারা ছয়শর অধিক শিক্ষার্থী ভর্তি করে ৭০ শতাংশ ভালো ফলাফল করেছে সেসব কলেজকে রাখা হয়েছে ‘এ’  ক্যাটাগরিতে। একই সংখ্যক শিক্ষার্থী ভর্তির পর যাদের রেজাল্ট ৭০ শতাংশের কম সেসব কলেজ থাকবে  ‘ বি’ ক্যাটাগরিতে। আর পাশের হার ৫০ শতাংশের কম এবং শিক্ষার্থীও ৬০০ জনের কম হলে সেসব কলেজ থাকবে ‘সি’ ক্যাটাগরিতে।

তবে এই সিদ্ধান্তটি এখনও পর্যন্ত কেবল ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের। এই নিয়ম অনুসরণ করার কথা বাকি শিক্ষা বোর্ডের পক্ষ থেকে মৌখিকভাবে জানানো হয়েছে।

এ বছর ১৭ লাখেরও বেশি শিক্ষার্থী এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে জানিয়ে ঢাকা শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যান বলেন, এবার পাস করা  শিক্ষার্থীরা ভর্তি হওয়ার পরও কমপক্ষে দশ লাখ আসন খালি থাকবে। আর একারণেই শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং বিভিন্ন বোর্ডের চেয়ারম্যানরা চাচ্ছেন, পাস করা শিক্ষার্থীরা যেন অপেক্ষাকৃত ভালো কলেজে  ভর্তির সুযোগ পান।

এ ব্যাপারে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন, একাদশ শ্রেণিতে যারা ভর্তি হচ্ছেন তাদেরকে শিক্ষার ভালো পরিবেশ দেওয়া আমাদের দায়িত্ব। এজন্যই মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকেও এবারের ভর্তি প্রক্রিয়া নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করা হবে।

শ্রেণীকরণের এই নতুন সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন রাজধানীর অন্যতম সেরা বিদ্যাপীঠ নটরডেম কলেজের অধ্যক্ষ হেমন্ত পিউস রোজারিও। তিনি বলেন, অনেক শিক্ষার্থী থাকেন যারা ভালো কলেজ ভেবে ভুল কলেজে ভর্তি হন। তারা শিক্ষা জীবনের এই গুরুত্বপূর্ণ সময়টা মানসিক অশান্তিতে ভোগেন। এখন অন্তত তেমনটা হওয়ার সম্ভাবনা নেই। অভিভাবক এবং শিক্ষার্থীদের প্রতি আমার পরামর্শ থাকবে, তারা যেন ভর্তির আগে ভালোভাবে প্রতিষ্ঠানটিকে যাচাই-বাছাই করে নেয়।

১২ মে থেকে শুরু হয়ে ২৩ মে পর্যন্ত চলবে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন। অনলাইনের মাধ্যমে ৫ থেকে ১০ টি কলেজে আবেদন করতে পারবে শিক্ষার্থীরা। অনলাইনে আবেদন করতে হবে www.xiclassadmission.gov.bd ঠিকানায়। টেলিটক মোবাইল ফোনের মাধ্যমেও এসএমএস করে আবেদনের সুযোগ আছে।

শীর্ষকাগজ/এসএসআই