শুক্রবার, ১৯-জুলাই ২০১৯, ০৭:২৭ পূর্বাহ্ন

বৃটেনে রোজায় দাম কমে, বাংলাদেশে বাড়ে!!!

shershanews24.com

প্রকাশ : ০৭ মে, ২০১৯ ০৮:৫২ অপরাহ্ন

আবু রুশদ: ২০১৬ সালে যেদিন হলি আর্টিজানে হামলা হয় সেদিন আমি পরিবারসহ লন্ডনে এক বন্ধুর বাসায় ইফতারের দাওয়াতে গিয়েছিলাম। সেবার যুক্তরাজ্য সফরের সময় আতিথিয়তা নিয়েছি Uzzal Khan ভাই (আমার স্ত্রীর আত্মীয়) ও ক্যাডেট কলেজের ক্লাসমেট Milon Shuchi (মিলন) এর বাসায়। উজ্জ্বল ভাই ও আপা দু’জনই পরহেজগার মানুষ। জুলাই মাসে ওখানে ইফতারের সময় হয় রাত ৯ টা’র দিকে। আবার সেহরী খেতে হয় আগে। অর্থাৎ দিন অনেক বড়। যাহোক, উজ্জ্বল ভাইয়ের বাসায় থাকতে জানতে পারলাম যে বৃটেনে রমজান মাসকে সম্মান করে মুসলমানদের জন্য ডিপার্টমেন্টাল স্টোর যেমন টেসকো’তে বিভিন্ন খাদ্যদ্রব্যের দাম কম নেয়া হয়। ভোজ্য তেল, চাল, আটা এমন বেশকিছু পণ্যে মুসলমানরা রোজার মাসে রেয়াত পান। বৃটিশরা কেন এটা করে তা তারাই ভালো বলতে পারবে। তবে কিছু কিছু মুসলমান এই বদান্যতাকে মিসইউজ করে থাকে। তারা এই কমদামের সুবিধা নিয়ে একসাথে কয়েকমাসের তেল,আটা কিনে রাখে! এটা মুসলমানদের রুচির ব্যাপার!
মালয়েশিয়া মুসলিম দেশ। আমার মেয়ে ওখানে পড়তো। তাই দু’বার রোজার সময় ওখানে বেশক’দিন থেকেছি। সবজায়গায় ডিসকাউন্টের ছড়াছড়ি রোজাকে সম্মান করে। শুনেছি অন্যান্য অনেক মুসলিম দেশে রোজার মাসে জিনিসপত্রের দাম কমানো হয় সংযমের মাস কথাটিকে মনে রেখে। 
আর বাংলাদেশ?! কিছু কি বলার আছে? মসজিদে গিয়ে নামাজ পড়লেই আমাদের দায়িত্ব শেষ- তারপর রোজা আসলে হরিলুটের আয়োজন! আল্লাহ কি এগুলো করতেই আমাদের বলেছেন?